আপনার যৌবন ধরে রাখতে যা যা বেশি করে খাবেন

জীবনের ত্রিকাল দর্শন শেষে যমের অপেক্ষায় দিন গুনতে থাকা কোনো ব্যক্তিকে যদি প্রশ্ন করা হয়- আপনার শেষ ইচ্ছা বা আকাঙ্ক্ষা কী? তিনি নির্দ্বিধায় বলে উঠবেন- ‘হায়, যদি যৌবন ধরে রাখতে পারতাম, যদি যৌবন ফিরে আসত?’ কিন্তু সে কি আর সম্ভব? তবে, ‘দাঁত থাকতে দাঁতের মর্যাদা’ দিলে এ আফসোসের মাত্রা হয়তো খানিক কমতেও পারে। যেমন- বয়স বাড়লেও কেবল খাদ্যাভ্যাসের কারণে অনেকে মানসিক ও শারীরিক সক্ষমতায় দীর্ঘকাল চিরসবুজ থাকেন, আবার অনেকে কেবল খাদ্যাভ্যাসের জন্যই অকালে বুড়িয়ে যান।

গরুর দুধ

চিকিৎসাশাস্ত্র মতে, গরুর দুধ ভোক্তাকে দীর্ঘায়ুলাভে সাহায্য করে। ভোক্তার যৌবনও ধরে রাখে। এছাড়া, মেধা শাণিত করতে এবং মলমূত্র ত্যাগের মাধ্যমে শরীর সবসময় ফুরফুরে ও সতেজ রাখতে গরুর দুধের কার্যকারিতা অপরিসীম। প্রাণীর দুধের চেয়ে গরুর দুধই দেহ শক্তিশালী ও মন তরতাজা করার ক্ষেত্রে বেশি কার্যকর বলে বিবেচনা করা হয়।

ঘি

ভোক্তার চেহারার সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে তারুণ্য ধরে রাখতে গরুর দুধের ঘি’য়ের জুড়ি নেই। এ ঘি দৃষ্টিশক্তি, হজমিশক্তি, স্মৃতিশক্তি এবং মনোবলও বৃদ্ধি করে। একই সঙ্গে ভোক্তাকে দীর্ঘায়ু লাভেও সাহায্য করে।

লাল চাল

প্রাকৃতিকভাবে লাল চাল মিষ্টি, তৈলাক্ত ও শক্ত হয়ে থাকে। এ চাল খেলে শারীরিক সক্ষমতা ও সৌন্দর্য এবং বীর্যের মান বৃদ্ধি পায়, স্বর সুন্দর হয়। এছাড়া লাল চাল জিহ্বার রুচি ও হজমি শক্তি বাড়ায়।

লাউ

চিকিৎসা শাস্ত্রে বলা আছে, লাউ প্রাকৃতিকভাবে যৌন ইচ্ছা বৃদ্ধি করে। একই সঙ্গে খাবারের রুচি ও স্বাদ বাড়ায়। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতেও লাউয়ের ভূমিকা অসাধারণ।

 

ফলমূল

ফলমূলে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার, ভিটামিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যা শরীরে পুষ্টি যোগায় ও রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়লে শরীরে স্বাভাবিকভাবেই বয়সের ছাপ পড়বে না। এছাড়া, হাঁটাহাঁটি ও কায়িক পরিশ্রম দেহের সুঠাম ভাব ধরে রাখতে সাহায্য করে। এর ফলে শরীরে বার্ধক্যের ছাপ সহজে পড়তে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.