ইমাম মাহদীর সময়ে আবারো গাদীরে খুমকে জীবন্ত করা হবে

শেষ জামানায় প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য থেকে এমন কিছু ইসলামের মধ্যে প্রবেশ করানো হবে যে মুসলিম উম্মাহ দিশাহারা হয়ে পড়বে।

হুজ্জাতুল ইসলাম কারগার বলেন, শেষ জামানা আহলে বাইতের অনুসারীদের জন্য একটি অতি কঠিন সময়। এসময়ে বাহ্যিক  দ্বীনদারের সংখ্যা বহু হবে কিন্তু প্রকৃত পক্ষে তারা দ্বীন দ্রোহি এবং ধর্মকে তারা ব্যক্তি স্বার্থে ব্যাবহার করবে।

মহান আল্লাহর ঐশী ধর্ম ইসলাম শত্রুদের থেকে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হবে এই ধরনের লোকদের মাধ্যমে।

তারা নিজেদেরকে মুসলমান বললেও ইসলাম থেকে তারা্ সব থেকে বেশী দূরে থাকবে। ইসলাম কেবল তাদের মুখেই সীমাবদ্ধ থাকবে। ইসলাম অসহায় হয়ে পড়বে যেভাবে প্রথমে অসহায় ছিল। মানুষের ভিতর থেকে ইসলামকে খালি করা হবে যেভাবে পানির পাত্র থেকে পানি খালি করা হয়।

wpid-eideghadir

তবে ইমাম মাহদীর আবির্ভাবের পর এই পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটবে এবং ইমাম সকল অপসাংস্কৃতিকে ধ্বংস করবেন। আর নবির সিরাতের দিকে দাওয়াত করবেন।

মোটকথা ইমাম মাহদীর আবির্ভাবের যুগ হবে গাদীরে খূমকে জীবন্ত করার যুগ এবং ইসলামকে রক্ষা ও পূর্ণ করার যুগ। «یدعو الناس الی کتاب الله و سنّة نبیّه و الولایة لعلیّ بن ابی طالب…» তিনি মানুষকে রাসূল(সা.) এর আদর্শের দিকে আহ্বান করবেন।।

রাসূল(সা.) বলেছেন: «يُقيم النّاسَ عَلي مِلّتي و شَريعَتي و يَدْعوهُم اِلي كِتابِ ربّي» মাহদী মানুষেকে ইসলামধর্মে দিক্ষিত করবেন এবং আল্লাহর কিতাবের দিকে আহ্বান করবেন।