এই একটি ছবিতেই কাঁদছে সারা ফেসবুক পাড়া, কেন?

হাসপাতালের বেডে নিশ্চুপ ১১ দিন বয়সী ভাইটি। তাকে জড়িয়ে ধরেছে সমান বয়সী ভাই (যমজ)। যেন তার যন্ত্রণা বুঝতে পেরে ‍আগলে রাখতে চাইছে।

মা-বাবা এই দৃশ্য দেখে আপ্লুত হন। ছবি তুলে রাখেন। দেন ফেসবুকেও। কিন্তু এই ছবির একজন সপ্তাহ না পেরোতেই হারিয়ে যাবে কে জানতো?

নবজাতক এই যমজের মধ্যে একজনের মৃত্যুর খবর যেন কাঁদাচ্ছে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম পাড়াকে।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় জন্ম নেওয়া যমজদের মধ্যে মারা যাওয়া নবজাতকটির নাম হাওক। আর তাকে আগলে রাখতে চেয়েছিল যে ভাই তার নাম ম্যাসন।

জন্মের পরপরই জটিল কনজিনটাল ডায়াপ্রাগম্যাটিক হারনিয়া (সিডিএইচ) রোগে আক্রান্ত হয় হাওক। সেজন্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল সে। সঙ্গে ছিল ম্যাসনও।

এরমধ্যে ম্যাসন যেদিন হাওককে বুকে আগলে রেখেছিল তার ঠিক ছ’দিন পর বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) মারা যায় গেল অসুস্থ ভাইটি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ম্যাসন-হাওকের জড়াজড়ির ছবি দেখে যারা উচ্ছ্বাস-ভালোব‍াসা দেখিয়ে তাদের মা-বাবাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন, তারা এখন হাওকের মৃত্যুতে শোকাতুর। তবে সমবেদনা জানাচ্ছেন ম্যাসন-হাওকের মা-বাবাকে। দিচ্ছেন ধৈর্য্য ধরার পরামর্শও।

কিন্তু এমন ভালোবাসার যমজদের মধ্যে একজনের বিয়োগব্যথা কী করে সইবেন তাদের মা-বাবা?