এক পুলিশ সুপারের অদ্ভুত মহানুভবতা – নিজে পড়ুন ও অন্যকে শেয়ার করুন।

মানিকগঞ্জে , জুম’আর নামাজের সালাম ফিরাতেই ২৫/ ৩০ বছরের এক যুবক দাড়িয়ে বললেন; আমি অন্ধ মানুষ, দু’চোখে দেখতে পাইনা।
অন্যের কাছে শুনে শুনে পূর্ণ কুরআন মুখস্ত করেছি। আমি আরো পড়তে চাই, আলেম হতে চাই।
ডাক্তার বলেছেন; চোখের ক্রেনিয়া পরিবর্তন করালে আমি দেখতে পাবো।
চিকিৎসা ব্যয় হবে দু’লক্ষ টাকা।

আমি অসহায় মানুষ ! আমার এতো টাকা জোগাড় করার সামর্থ্য নেই, তাই আপনাদের সাহায্য চাচ্ছি।

মসজিদের সিড়িতে দাড়ালেন যুবকটি।যে যার মত সাহায্য করছে।

মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার মহোদয় (মাহফুজুর রহমান বিপিএম) সুন্নাত পড়ে বের হলেন, সাথে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, এএসপি হেড কোয়াটারসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।
পুলিশ সুপার মহোদয় প্রথমেই ১হাজার টাকার একটি নোট যুবকের হাতে দিলেন।
অতঃপর জিজ্ঞাসা করলেন;
আপনি কি হাফেজ ?
জি।
কেউ আপনার চিকিৎসা করিয়ে দিলে আপত্তি আছে ?
না, সে তো ভালো কথা।
আর মানুষের কাছে হাত পাতবেন না তো ?
জিনা।
আলেম হবেন ?
জি ইনশাআল্লাহ।

এবার পুলিশ সুপার মহোদয় কোথায় যেন ফোন দিলেন।
ফোন শেষে বললেন; আপনার চিকিৎসা বাবদ দুই লক্ষ নয়, যত টাকা লাগে সব দেয়া হবে, এমন কি যদি এদেশে চিকিৎসা না হয় ইন্ডিয়াতে নিয়ে হলেও আপনার সঠিক চিকিৎসা করানো হবে।
ঠিক আছে ইমাম সাহেবের কাছে আপনার ঠিকানা দিয়ে যান।
আর আগামীকাল সকাল ১১ টায় পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আসবেন।

ও আল্লাহ তুমি এমন সুন্দর মনের মানুষ পথিটি
ঘরে ঘরে সৃষ্টি করে দেও

আমিন ।
সবাই পুলিশ ভাইয়ের এই মহানুভবতা কে অবশ্যই শেয়ার করবেন ইনশাআল্লাহ ।