কাজে না গিয়েও ১৫ বছরে বেতন তুললেন সাড়ে ৫ কোটি টাকা

Female student checking her computer

১৫ বছর বিনা কাজে বেতন তুলে নেয়ার এমন ঘটনা ঘটেছে ইতালিতে। যে ব্যক্তি এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন তাকে স্থানীয় মিডিয়া ‌গরহাজিরদের বাদশাহ উপাধি দিয়েছে।

এই দীর্ঘ সময় কাজে না গিয়ে ওই ব্যক্তি অনুপস্থিত থাকার জাতীয় রেকর্ড ভেঙেছেন বলেও খবরে উল্লেখ করা হয়েছে। ফাঁকিবাজ এই ব্যক্তি ইতালির কালাব্রিয়া অঞ্চলের কাতানজারো শহরের চিয়াছিও হাসপাতালে কাজ করতেন। কিন্তু ২০০৫ সাল থেকে তিনি আর কাজেই যান না।

ইতালির গণমাধ্যম জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে এখন প্রতারণা, চাঁদাবাজি এবং ক্ষমতা অপব্যবহারের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই দীর্ঘ সময় ধরে কাজে অনুপস্থিত থাকলেও বেতন ঠিকই তুলে গেছেন এই ব্যক্তি। এসময় তিনি বেতন বাবদ ৫ লাখ ৩৮ হাজার ইউরো (প্রায় ৫ কোটি ৪৯ লাখ ২০ হাজার টাকা) তুলেছেন।

এই দীর্ঘ সময় তাকে অনুপস্থিত থাকতে সাহায্য করায় হাসপাতালের ছয়জনের ম্যানেজারের সঙ্গে যোগসাঁজশেরও এক মামলায় তার বিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি একজন সরকারি চাকরিজীবী ছিলেন। ২০০৫ সালে তাকে ওই হাসপাতালে কাজ করতে নিয়োগ দেয়া হয়।

এরপর থেকেই কাজে বাদ দেন ওই ব্যক্তি। পুলিশ জানায়, তার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ করতে চাইলে হাসপাতালের ম্যানেজারকে হুমকিও দেন এই ব্যক্তি। ওই ম্যানেজার পরবর্তীতে অবসর নেন। তার পরে আসা ম্যানেজার এবং মানব সম্পদ বিভাগ এই ব্যক্তির অনুপস্থিতি ধরতেই পারেনি।

সরকারি চাকরিজীবীদের কাজে অনুপস্থিতি এবং সন্দেহভাজন প্রতারণা ধরতে ইতালির পুলিশ যে অভিযান চালাচ্ছে, এরই অংশ হিসেবে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে ২০১৬ সালে অলস কর্মীদের চিহ্নিত করতে ইতালির সরকার একটি আইন কঠোর করেছিল।