ছেলেকে খুশি করতে বাস্তবের পরী দেখালেন বাবা! (ভিডিও)

সন্তানের খুশির জন্য সবকিছু্ই করতে পারেন বাবা। সম্প্রতি এর বাস্তব নজির দেখিয়েছেন ড্যানিয়েল হাসিমোতো নামে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক বাবা। তিনি ছেলেকে খুশি করতে রাতের বেলায় বাস্তবের পরীকে হাজির করেছেন তার ঘরে।

ড্যানিয়েল হাসিমোতোর ছেলের নাম জেমস, বয়স ৫-৬ বছর। ইংল্যান্ডসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের রূপকথার গল্পে ‘দাঁতের পরীর’ কথা প্রচলিত আছে। বলা হয়, দাঁতের পরী শিশুদের দাঁতের দেখাশুনা করে। যখন শিশুর দাঁত ওঠে তখন পরী এসে সেইগুলো নিয়ে যায় এবং তার জন্য মূল্যবান উপহার রেখে যায়।

শিশুদের যখন দ্বিতীয়বার দাঁত ওঠা শুরু করে তখন তারা পুরোনো দাঁতগুলো ব্যথার জন্য ফেলতে চায় না। তখন তাদেরকে রূপকথার গল্প শোনানো হয়। বলা হয়, তুমি তোমার একটা পুরোনো দাঁত তুলে পরীকে দাও তাহলে সেও তোমাকে টাকা-পয়সাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র উপহার দেবে।

গভীর রাতে এক সাদা পরী এসে জেমসের বালিশের নিচ থেকে দাঁতগুলো নিয়ে যায় এবং সুরমা ভরা একটি রুপোর কৌটা রেখে যায়

কিন্তু হাসিমোতোর ছেলে জেমস কিছুতেই তা বিশ্বাস করতে চাচ্ছিল না। তাছাড়া রাতের বেলা যে সত্যি পরী আসে তাও বিশ্বাস করছিল না। তাই তার বিশ্বাস আনার জন্য অভিনব পদ্ধতি হাতে নিয়েছিল বাবা হাসিমোতো।

এক রাতে জেমসকে তার কয়েকটি দাঁত বালিশের নিচে প্যাকেট করে রেখে ঘুমোতে বলেন হাসিমোতো। সে সময় তিনি ছেলের ঘুমানোর ভিডিও ধারণ করেন। তারপর ভিডিওটি কম্পিউটার গ্রাফিক্স করে তাতে এক সাদা পরীর আসার দৃশ্য যোগ করে দেন।

ভিডিওতে এমন নিখুঁত গ্রাফিক্স করেন যাতে মনে হয় সত্যি এক সাদা পরী জেমসের ঘরে এসে বালিশের নিচ থেকে দাঁতগুলো নিয়ে গেছে। আর জেমসের জন্য উপহার হিসেবে একটি রুপোর কৌটায় কিছু সুরমা রেখে গেছে।

সকালে ভিডিওটি ছেলেকে দেখতে বলেন হাসিমোতো। ভিডিও দেখে ছেলে তখন দারুণ খুশি। এভাবে হাসিমোতো তার ছেলেকে বাস্তবের পরীকে দেখিয়ে আনন্দ দেন।

তারপর হাসিমোতো তার বানানো ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করলে কিছুক্ষণের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় ইন্টারনেটে। এখন পর্যন্ত হাজার হাজার বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। অনেকে ছেলের খুশির জন্য বাবার ওই কাজকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। ইতোমধ্যে একজন আদর্শ বাবা হিসেবে  ইন্টারনেট জগতে খেতাব পেয়েছেন হাসিমোতো।

ভিডিও:

https://www.youtube.com/watch?v=y0otjTGU3iA