তুরস্কে বরখাস্তের সংখ্যা ৪৫ হাজারে পৌঁছেছে।

তুরস্কে সেনা অভ্যুত্থান ব্যর্থ হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ৪৫ হাজার সরকারি কর্মীদের বরখাস্ত করেছে দেশটির সরকার। এদের মধ্যে রয়েছে বিশ্ববিদ্যলয়ে শিক্ষক, ডিন, বিচারক ও গণমাধ্যমকর্মীরাও রয়েছেন।

এক্ষেত্রে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের প্রতি অনুগত নয় এবং যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছায় নির্বাসিত দেশটির ধর্ম প্রচারক ফেতুল্লাহ গুলেন সমর্থক এমন সব মানুষকে টার্গেট করা হচ্ছে। তুর্কি সরকারের দাবি, গুলেনের সমর্থনে সেনাবাহিনীর অনুগত সদস্যরা এই অভ্যুত্থানের চেষ্টা করে। যদিও এ অভিযোগ শুরু থেকেই অস্বীকার করে আসছেন দেশটির নির্বাসিত এই ধর্মীয় নেতা।

তুর্কি গণমাধ্যম জানায়, নতুন করে ১৫ হাজার ২০০ শিক্ষক ও কর্মচারীকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে। এক হাজার ৫৭৭ জন বিশ্ববিদ্যালয় ডিনকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে। ৮ হাজার ৭৭৭ জন সরকারি কর্মচারী-কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে, এক হাজার ৫০০ জন অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মী এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কর্মরত ২৫৭ জনকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে।

এ ছাড়া, ধর্মীয় নেতা গুলেনের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে মঙ্গলবার তুরস্কের মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ দেশটির ২৪টি টেলিভিশন ও রেডিও চ্যানেলের লাইসেন্স বাতিল করেছে।