ভারতকে ১০ কোটি ডলার আর্থিক সহযোগিতা করলো আমেরিকা

করোনাভাইরাসের প্রকোপে পুরো ভারতজুড়ে দুর্বিষহ অবস্থা। নিয়মিত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড হচ্ছে। এমতা অবস্থায় ভারতকে ১০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি মূল্যের মেডিকেল উপকরণ দিয়ে সহায়তা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

২৮ এপ্রিল হোয়াইট হাউজ থেকে এ বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। রয়টার্সের একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ২৯ এপ্রিল থেকে এসব সহায়তা ভারতে পৌঁছাতে শুরু করবে এবং এই প্রক্রিয়া আগামী সপ্তাহ পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এসব উপকরণের মধ্যে রয়েছে এক হাজার অক্সিজেন সিলিন্ডার, দেড় কোটি এন-৯৫ মাস্ক, ১০ লাখ ডায়াগনস্টিক টেস্ট (আরডিটি)।

এ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র প্রসাশন ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার কাছে যুক্তরাষ্ট্রের টিকা উপকরণের নিজস্ব অর্ডারও ভারতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে। এ উপকরণ দিয়ে ভারতীয়রা অন্তত দুই কোটি ডোজ করোনা টিকা উৎপাদন করতে পারবে।

সংবাদ বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস বলেছে, করোনাভাইরাসের শুরু থেকে আমাদের হাসপাতালগুলোর সংকটকালীন মুহূর্তে ভারত যেভাবে সহায়তা পাঠিয়েছিল, আমেরিকাও সেভাবে ভারতের প্রয়োজনের সময় সাহায্য করবে বলে জানায়।

এদিকে, ভারতে থামছেই না করোনায় মৃত্যুর মিছিল। একদিনে নতুন করে মারা যায় রেকর্ড তিন হাজার ৬৪৭ জন। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় চার লাখ মানুষ। এ নিয়ে দেশটিতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৮৩ লাখ ৬৮ হাজার ৯৬ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ৪ হাজার ৮১২ জন।

লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সই বলে দিচ্ছে ভারতের করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতা। হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেনের জন্য হাহাকার আছেই। সেই সঙ্গে অপর্যাপ্ত ব্যবস্থা মানুষকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষ।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, ২৯ এপ্রিল সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ১৪ হাজার ৮১৩ জন এবং নতুন করে ৮ লাখ ৭০ হাজার ৯৫২ জনের শরীরে এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩১ লাখ ৬৩ হাজার ২৭ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ কোটি ১ লাখ ৯৭ হাজার ৪৫৫ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২ কোটি ৮২ লাখ ৫৫ হাজার ৪৪৬ জন।