মদিনা শরিফে আল্লাহর নাম সংবলিত প্রদর্শনীতে হাজীদের ভিড়

মদিনা মোনাওয়ার থেকে: এখন চলছে হজের মৌসুম। মক্কার পাশাপাশি মদিনাতে হাজী সাহেবরা বেশ কয়েকদিন অবস্থান করবেন। মদিনা মোনাওয়ারা এসে হাজী সাহেবরা বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থান, মসজিদ ও স্থাপনা পরিদর্শন করেন। ঘুরে দেখতে চান বিভিন্ন প্রদর্শনী ও জাদুঘর। তবে চেনা না থাকায় সেসব প্রদর্শনী ও জাদুঘর দেখা থেকে অনেকেই থেকে যান বঞ্চিত। তাই মসজিদে নববীর অাঙিনায় অবস্থিত কিছু প্রদর্শনী ও জাদুঘরের সংক্ষিপ্ত বিবরণ এখানে উল্লেখ করা হবে। আজ থাকছে আল্লাহতায়ালার নামের প্রদর্শনী নিয়ে আলোচনা।

আল্লাহতায়ালার নামের প্রদর্শনীর স্থানটি মসজিদে নববীর পশ্চিম পাশে ১৩ নম্বর গেইটের সঙ্গে অবস্থিত। এর উদ্বোধন হয় ২০১৩ সালে। এর ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে সামায়া হোল্ডিং কোম্পানী।

এ প্রদর্শনীর মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে, দর্শনার্থীকে আল্লাহতায়ালার নাম, গুণাগুণ ও তার বড়ত্ব, কর্তৃত্ব ও শ্রেষ্ঠত্বের সঙ্গে পরিচিত করা। মুমিন হৃদয়ে আল্লাহর প্রেম-ভালোবাসা সৃষ্টি করতে সহায়তা করা।

প্রদর্শনীতে ঢুকেই দর্শকরা বিশাল আকারের একটি ডামি দেখতে পাবেন। যেখানে চন্দ্র, সূর্যসহ বিভিন্ন গ্রহ নক্ষত্রের ছবি রয়েছে। এর মাধ্যমে আল্লাহর সৃষ্টির বিশালতা বুঝানোর পাশাপাশি সৃষ্টি রহস্য সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়েছে দর্শকদের।

আরেকটু সামনে রয়েছে আল্লাহর নাম জানা, বুঝা এবং মুখস্ত করার উপকারিতা ও ফজিলত বিষয়ে হাদিস এবং চিত্র।

প্রদর্শনীটি তিনটি ভাগে বিভক্ত। প্রথম অংশে রয়েছে আল্লাহর ওই সব নাম- যা জানার মাধ্যমে একজন মুমিনের হৃদয়ে আল্লাহর প্রতি ভালোবাসা তৈরি হয়। হৃদয়-মন আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা ও শোকরিয়া আদায়ে আগ্রহী হয়।

দ্বিতীয় অংশে এমন সব নাম রয়েছে, যা জানা এবং বুঝার মাধ্যমে মুমিনের হৃদয়ে ভয় সৃষ্টি হয়। ফলশ্রুতিতে একজন মুমিন সবধরণের খারাপ কাজ এবং গোনাহ করা থেকে বিরত থাকে।

তৃতীয় অংশে রয়েছে ওই সব নাম- যা জানা এবং বুঝার মাধ্যমে মুমিনের হৃদয়ে আশা সঞ্চার হয়। এসব নামের বিবরণ শুনে দুনিয়া-আখেরাতে সুন্দর জীবন গঠনে আগ্রহী হয়। বেশি বেশি আমল করার ইচ্ছা জাগ্রত হয়।

এ প্রদর্শনীতেও বিভিন্ন ভাষায় বিস্তারিত অনুবাদ ও আলোচনা করার জন্য মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা রয়েছেন। বাংলা ভাষায় আছেন তিন জন। সকালে নুরু আলম এবং আব্দুল হাকীম। বিকেলে মাছুম বিল্লাহ ফিরোজী।

লেখক: শিক্ষার্থী, মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়