মন্দিরে প্রবেশে বাধা দেওয়ায় ইসলাম গ্রহণ, কারন, জাতিবর্ণ নির্বিশেষে মসজিদে প্রবেশে কারো বাধা নেই । সুবহানাল্লাহ ।

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের একটি গ্রামে মন্দিরে উৎসব চলছিল। ওই মন্দিরে দলিত সম্প্রদায়ের মানুষদের প্রবেশে বাধা দেওয়া হয়। আর ওই ক্ষোভে তারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেয়। এরইমধ্যে ওই প্রদেশের কারুর জেলার ছয়টি পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে বলে খবর। পাশাপাশি আরো ৫০টি পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার ব্যাপারে আগ্রহী হয়ে উঠেছে বলে জানা যায়।

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ, তামিলনাড়ু রাজ্যের ভেদারনইয়াম ও কারুরগ্রামের দলিত সম্প্রদায়ের মানুষজনকে মন্দিরে প্রবেশ করতে না দেওয়া এবং তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। দলিত সম্প্রদায়ের মানুষজন জানায়, ভেদারনইয়ামে মহাশক্তি আমমান মন্দিরে একটি উৎসবের সময়ে তাদের ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। আর এ কারণেই তারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেয়।

এই বিষয়ে তামিলনাড়ুর তাওহিদ জামাতের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল রহমান জানিয়েছেন, এরই মধ্যে কারুর গ্রামের ছয়টি দলিত পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে। বাকি ৫০ টির মতো পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা ওদের সব রকম মর্যাদা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। তাদের মানবাধিকার ও সামাজিক সম্মান ক্ষুণ্ণ হতে দেওয়া হবে না বলেও আমরা ওদেরকে জানিয়েছি।’

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ, তামিলনাড়ু রাজ্যের ভেদারনইয়াম ও কারুরগ্রামের দলিত সম্প্রদায়ের মানুষজনকে মন্দিরে প্রবেশ করতে না দেওয়া এবং তাদের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। দলিত সম্প্রদায়ের মানুষজন জানায়, ভেদারনইয়ামে মহাশক্তি আমমান মন্দিরে একটি উৎসবের সময়ে তাদের ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। আর এ কারণেই তারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেয়।

এই বিষয়ে তামিলনাড়ুর তাওহিদ জামাতের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল রহমান জানিয়েছেন, এরই মধ্যে কারুর গ্রামের ছয়টি দলিত পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে। বাকি ৫০ টির মতো পরিবার ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তিনি বলেন, ‘আমরা ওদের সব রকম মর্যাদা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। তাদের মানবাধিকার ও সামাজিক সম্মান ক্ষুণ্ণ হতে দেওয়া হবে না বলেও আমরা ওদেরকে জানিয়েছি।’