মে মাসেই বন্ধ হচ্ছে ‘ইয়াহু অ্যানসারস’

এ বছরের মে মাসের চার তারিখে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ‘ইয়াহু অ্যানসারস’। ২০০৫ সাল থেকে ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করছেন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা। ইন্টারনেট দুনিয়ায় সবচেয়ে দীর্ঘসময় ধরে চলা কিউঅ্যান্ডএ প্ল্যাটফর্মের অন্যতম এটি।

বর্তমানে ইয়াহুর মালিক ভেরাইজন মিডিয়া। প্রযুক্তিবিষয়ক ব্লগ এনগ্যাজেটের প্রতিবেদন বলছে, ঠিক কীভাবে গোটা প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে, সে ব্যাপারে সম্প্রতি বিস্তারিত জানিয়েছে ইয়াহু।

এপ্রিলের ২০ তারিখ বন্ধ হতে শুরু করবে সেবাটি। ওই সময় থেকেই নতুন আর কোনো সাবমিশন নেবে না ওয়েবসাইটটি। ব্যবহারকারীরা মে মাসের চার তারিখ পার হয়ে যাওয়ার পরও জুনের ৩০ তারিখ পর্যন্ত সময় পাবেন নিজ নিজ কনটেন্টের আর্কাইভ ডাউনলোড করে নেওয়ার জন্য।

বন্ধ হওয়ার পর ইয়াহু অ্যানসারস পেইজে গেলে সরাসরি ইয়াহু হোমপেইজে নিয়ে যাওয়া হবে। মূলত ব্যবহারকারী কমে আসায় সেবাটি বন্ধ করে দিচ্ছে ইয়াহু।

এ প্রসঙ্গে এক বার্তায় প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, “এক সময়ে ইয়াহু পণ্য ও সেবার গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ ছিল ইয়াহু অ্যানসারস, সময়ের সঙ্গে আমাদের সদস্যদের প্রয়োজন পরিবর্তিত হয়ে যাওয়ায় এর জনপ্রিয়তা কমে গেছে।”

“এ কারণেই আমরা ইয়াহু অ্যানসারস থেকে সম্পদ সরিয়ে নিয়ে এমন সব সেবায় মনোনিবেশ করতে চাইছি যা সদস্যদের সেবা দিতে পারবে এবং প্রিমিয়াম নির্ভরযোগ্য কনটেন্ট দেওয়ার যে প্রতিশ্রুতি ইয়াহু দিয়েছে তা দিতে পারবে।” – যোগ করেছে ইয়াহু।

ইয়াহু অ্যানসারসের ব্যবহারকারী কমে যাওয়ার পেছনে কারণও রয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বী সেবা গুগলেরই নিজস্ব কিউঅ্যান্ডএ অংশ রয়েছে। অধিকাংশ প্রশ্নের বেলায়, সার্চ ইঞ্জিনটি উইজেট দিয়ে উত্তর জানিয়ে দেয়। ব্যবহারকারীদের এজন্য আর বাড়তি কোনো ওয়েবসাইটে যাওয়ার প্রয়োজন পড়ে না।

এনগ্যাজেট উল্লেখ করেছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পোস্টের গুণগত মানও কমে এসেছিল অনেকটাই। সাইটটিতে অনলাইন ট্রোলের আনাগোনাই ছিল বেশি।