রাসূল (সা.) নিজেই ইমাম হুসাইনের (রা) শাহাদাতের পূর্বাভাস দিয়েছেন

বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও গবেষক হুজ্জাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন আগা মুহাম্মাদি পবিত্র মহররম মাস উপলক্ষে শাবিস্তান প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে বলেন: হাদীসে বর্ণিত হয়েছে যে, ইমাম হুসাইন (রা.) জন্ম লাভের পর রাসূল (সা.) তার ফুফুকে বলেন : আমার নবজাতক শিশুকে আমার নিকট নিয়ে আসেন। তখন তার ফুফু বলেন : এ শিশুকে তো এখনও পরিচ্ছন্ন করা হয় নি। জবাবে রাসূল (সা.) বলেন: যে শিশুকে আল্লাহ তায়ালা পাক-পবিত্র করে পাঠিয়েছে তাকে কি আর পরিস্কার করার প্রয়োজন আছে (আয়াতে তাতহীর তথা কোরআনের সূরা আহজাবের ৩৩ নং আয়াতের প্রতি ইশারা করা হয়েছে; যেখানে আল্লাহ আহলে বাইতকে পবিত্র হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে।) অত:পর রাসূল (সা.) ইমাম হুসাইনকে কোলে নিয়ে কাদতে থাকেন এবং বলতে থাকেন- আল্লাহর লা’লত বর্ষিত হোক সেই অত্যাচারি গোষ্ঠীর প্রতি যারা তোমাকে পিপাসিত অবস্থায় শহীদ করবে। তখন তার ফুফু তার ক্রন্দনের কারণ জিজ্ঞাসা করেন। এ সময় তিনি বলেন যে, বনি উমাইয়া বংশের লোকেরা আমার হুসাইনকে শহীদ করবে।

8260043083_4121aa5d8d_b

তিনি আরও বলেন: ইমাম হুসাইনের (রা.) শাহাদতের স্মরণে ক্রন্দনের উপর রাসূল (সা.) ও পবিত্র আহলে বাইত অপরিসীম গুরুত্বারোপ করেছেন। কেননা এ ক্রন্দনই ইসলামকে বাচিয়ে রেখেছে এবং মানুষকে ইসলামের প্রতি উদ্বুদ্ধ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.