ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীর সন্তান প্রসব, প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

ষষ্ঠ শ্রেণির এক কিশোরী আবাসিক স্কুলের হোস্টেলে জন্ম দিল শিশুসন্তানের। যার কারণে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও হোস্টেল সুপারকে রবিবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ওড়িশার কোরাপুটে।

স্থানীয় এসডিপিও রাজেন্দ্র সেনাপতি জানান, কোরাপুট জেলার জয়পুর ব্লকে তফশিলি জাতি ও উপজাতিদরে জন্য আবাসিক উমুরি আশ্রম স্কুলের শিক্ষার্থী ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী গত ৪ ফেব্রুয়ারি এক শিশুসন্তানের জন্ম দেয়। অভিযোগ, বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য চুপিসারে ওই কিশোরী ও তার সদ্যোজাতকে গাড়িতে চাপিয়ে মেয়েটির গ্রাম উপ্পরকেন্দিতে গিয়ে তার বাবা-মায়ের হাতে দুজনকে তুলে দেওয়া হয়।

খবর যায় জেলা প্রশাসনে। এরপরই জয়পুর ব্লকের উপজাতি-কল্যাণ কর্মকর্তা পৌঁছে যান ওই মেয়েটির বাড়ি। প্রাথমিক তদন্তের পর স্কুলের প্রধান শিক্ষক কৈলাশ বর্মা ও হোস্টেল সুপার সবীতা গুরুকে কর্তব্যে গাফিলতি ও ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার করে। বস্তুত, এই নিয়ে গত ১৫ দিনে দুটি একই ধরনের ঘটনা সাক্ষী থাকল ওড়িশা। এর আগে গত ২৩ জানুয়ারি কন্ধমাল জেলার লিঙ্গাগাড়ায় এমনই এক আবাসিক স্কুলের হোস্টেলে শিশুসন্তানের জন্ম দেয় এক দশম শ্রেণির কিশোরী। ওই ঘটনায় সুকান্ত প্রধান নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশ। তার বিরু্দ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.