স্বপ্নে মৃত ব্যক্তিকে দেখলে কী হয় !!

ঘুমের মধ্যে আমরা নানা রকম স্বপ্ন দেখি। এগুলোর একেকটির একেক রকম ব্যাখ্যা রয়েছে। সবচেয়ে বেশি যে স্বপ্নটি আমরা দেখি সেটি হলো মৃত ব্যক্তি। বিশেষ করে কারো আত্মীয় স্বজন মারা গেলে কয়েকদিন পরই তাকে স্বপ্নে দেখানো হয়। ইসলামে এর ব্যাখ্যা এসেছে।
ইমাম মুহাম্মাদ ইবনে সিরিন রহ. বলেন, কেউ যদি স্বপ্নে মৃত ব্যক্তিকে দেখে তাহলে তাকে যে অবস্থায় দেখবে সেটাই বাস্তব বলে ধরা হবে। তাকে যা বলতে শুনবে, সেটা সত্যি বলে ধরা হবে। কারণ, সে এমন জগতে অবস্থান করছে যেখানে সত্য ছাড়া আর কিছু নেই। যদি কেউ মৃত ব্যক্তিকে ভাল পোশাক পরা অবস্থায় বা সুস্বাস্থ্যের অধিকারী দেখে, তাহলে বুঝতে হবে সে ভাল অবস্থায় আছে। আর যদি জীর্ণ, শীর্ণ স্বাস্থ্য বা খারাপ পোশাকে দেখে তাহলে বুঝতে হবে, ভাল নেই। তার জন্য তখন বেশি করে মাগফিরাত কামনা ও দোআ-প্রার্থনা করা জরুরি।

এ বিষয়ে কয়েকটি হাদিস রয়েছে। ইবনে ওমর রা. বলেন, বিদ্রোহীরা যখন উসমান রাদিয়াল্লাহু আনহু’র বাসভবন ঘেরাও করল, তখন উসমান রা. বলেন, আমি গত রাতে স্বপ্ন দেখলাম, রাসূলুল্লাহ সা. বললেন, উসমান! আমাদের সাথে তুমি ইফতার করবে। আর ওই দিনই উসমান রা. শহীদ হলেন।
আনাস ইবনে মালেক রা. থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, একদিন আবু মূসা আশআরী রা. আমাকে বলল, আমি স্বপ্নে দেখলাম, একটি পাহাড়ের উপরে রাসূলুল্লাহ সা. রয়েছেন তার পাশে আবু বকর রা.। আবু বকর রা. তার হাত দিয়ে ওমর রা. এর দিকে ইশারা করছেন।
স্বপ্নের কথাটি শুনে আমি আবু মূসা আশআরী রা. কে বললাম, ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। আল্লাহর শপথ! ওমর রা. তো মারা যাবেন! আচ্ছা আপনি কি বিষয়টি ওমর রা. কে লিখে জানাবেন?
আবু মূসা রা. বললেন, আমি ওমর রা. কে তার জীবদ্দশায় নিজের মৃত্যু সংবাদ জানাব, এটা কি করে হয়? এর কয়েকদিন পরই স্বপ্নটা সত্যে পরিণত হল। ওমর রা. শহীদ হয়ে গেলেন। কারণ, মৃত্যু পরবর্তী সত্য জগত থেকে যা আসে, তা মিথ্যা হতে পারে না। সেখানে অন্য কোনো ব্যাখ্যা দেয়ার সুযোগ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.