২০৫০ সালের মধ্যে মুসলমানেরা খ্রিস্টানদের অতিক্রম করবে

আমেরিকার “পিউ (pew) রিসার্চ সেন্টারে”র সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০৫০ সালে মধ্যে জনসংখ্যার দিক থেকে খ্রিস্টানদের অতিক্রম করে মুসলমানেরা শীর্ষে থাকবে।

আমেরিকার ওয়াশিংটন ডিসির “পিউ রিসার্চ সেন্টারে”র সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিশ্বে মুসলমানের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী বৃদ্ধি পাচ্ছে। এবং অধার্মিকদের সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে।
নতুন এই পরিসংখ্যান অনুযায়ী, একবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার মধ্যে ৩৪ শতাংশ খ্রিস্টান এবং ৩৫ শতাংশ মুসলমানে পরিণত হবে।
Indian-Muslim community
মুসলমানদের সংখ্যা ক্রমবর্ধমান বৃদ্ধির দুটি কারণ:
১। জন্মের হার
২। মধ্যবয়স্ক জনসংখ্যার পরিমাণ কম
মুসলিম পরিবারের মধ্যে সন্তান জন্মের হার সবচেয়ে বেশী (৩.১ শতাংশ) এবং গড় বয়স ২৩ বছর অর্থাৎ অমুসলিমদের তুলনায় মুসলমানেরা প্রায় ৭ বছরের কনিষ্ঠ।
যে সকল দেশে মুসলমানদের সংখ্যা দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে:
ভারত:
অধিকাংশ মুসলমানেরা (৬০ শতাংশ) এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের অধিবাসী এবং ভবিষ্যতে হ্রাস পাওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ায় সবচেয়ে অধিক মুসলমান জীবন যাপন করেছ। তবে ইন্দোনেশিয়ার স্থানটি ভারত দখল করবে। অবশ্য এটি শুধুমাত্র জনসংখ্যার দিক থেকে এবং জনসংখ্যা বৃদ্ধির মানে এটি নয় যে সেখানে ইসলামি শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।
ম্যাসাডোনিয়া, নাইজেরিয়া ও বসনিয়া:
“পিউ (pew) রিসার্চ সেন্টারে”র পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০৫০ সালের মধ্যে এই তিনটি দেশে মুসলমানের সংখ্যা যথাক্রমে ৫৬.৩ শতাংশ, ৫৮ শতাংশ এবং ৪৯ শতাংশে পৌঁছাবে।
আমেরিকা:
বর্তমানে আমেরিকায় ১ শতাংশের অধিক মুসলমান রয়েছে, তবে ২০৫০ সালের মধ্যে দেশটিতে খ্রিস্টানদের ছাড়িয়ে মুসলমানেরা শীর্ষে থাকবে।
এগারোটি ইসলামী দেশে মুসলমানের সংখ্যা:
বিশ্বে প্রায় ৫০টি দেশ রয়েছে, যেখানে ইসলাম ধর্মের প্রচলন রয়েছে এবং মুসলমানের সংখ্যা প্রায় ৫০ শতাংশ।
১১টি মুসলমানের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী রয়েছে। দেশগুলো যথাক্রমে:
ইন্দোনেশিয়া:
বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়া। বর্তমানে দেশটিতে প্রায় ২০৪৮৪৭০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে। যা বিশ্বের মোট মুসলমানের প্রায় ১২.৭ শতাংশ।
পাকিস্তান:
পাকিস্তানে বর্তমানে ১৭৮০৯৭০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে। বিশ্বের মোট ১১ শতাংশ মুসলিম অধিবাসী পাকিস্তানে বসবাস করে।
ভারত:
ভারতে বর্তমানে ১৭৭২৮৬০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মুসলমানের সংখ্যার দিক থেকে ভারত বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ। তবে সেদেশে মোট জনসংখ্যার তুলনায় মুসলমানের সংখ্যা মাত্র ১৪.৬ শতাংশ।
বাংলাদেশ:
বাংলাদেশে প্রায় ১৪৮৬০৭০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে এবং মোট জনসংখ্যার ৮৯ শতাংশই মুসলমান।
মিশর:
মিশরে প্রায় ৮০০২৪০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে। বিশ্বের মোট ৪.৯ শতাংশ মুসলিম অধিবাসী মিশরে বসবাস করে।
নাইজেরিয়া:
নাইজেরিয়ায় প্রায় ৭৫৭২৮০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে এবং সেদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৪৭.৯ শতাংশই মুসলমান।
ইরান:
ইরানে প্রায় ৭৪৮১৯০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে। বিশ্বের মোট ৪.৭ শতাংশ মুসলিম অধিবাসী ইরানে বসবাস করে।
তুরস্ক:
তুরস্কে প্রায় ৭৪৬৬০০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে। বিশ্বের মোট ৪.৬ শতাংশ মুসলিম অধিবাসী ইরানে বসবাস করে।
আলজেরিয়া:
উত্তর আফ্রিকার একটি দেশ আলজেরিয়া। দেশটিতে প্রায় ৩৪৭৮০০০০ জন মুসলিম অধিবাসী রয়েছে।
মরক্কো:
মরক্কোয় মুসলিম জনসংখ্যা প্রায় ৩২৩৮১০০০ জন। দেশটির প্রায় ৯৯.৯ শতাংশ জনগণ মুসলমান।
ইরাক:
ইরাকে মুসলিম জনসংখ্যা প্রায় ৩১১০৮০০০ জন।
মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকায় প্রভাবশালী ধর্ম হচ্ছে ইসলাম
মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার কিছু দেশে প্রায় ৯৯ শতাংশ জনগণ মুসলমান। যেমন: মরক্কোয় ৯৯.৯ শতাংশ, আফগানিস্তানে ৯৯.৮ শতাংশ, তিউনিসিয়া ৯৯.৭ শতাংশ, সাহারায় ৯৯.৬১ শতাংশ এবং মৌরিতানিয়ায় ৯৯.২ শতাংশ মুসলিম অধিবাসী রয়েছে।
এছাড়াও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ সহ ভারত, রাশিয়া এবং চীনে’ও অনেক মুসলিম অধিবাসী রয়েছে।
iqna