৭ বছর বয়সেই মারিয়ার পুরো পবিত্র কোরআন মুখস্থ – এমন খবরটি শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন

মাত্র দুইবছরে পুরো কোআন মুখস্ত করে ফেলার বিস্ময়কর ঘটনার জন্ম দিয়েছে গ্রেট ব্রিটেনের লোটন অঞ্চলের ৭ বছর বয়সী মেয়ে মারিয়া। জন্মের পরেই মারিয়া আচরনে পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। মুখস্ত করার দক্ষতায় পরিবার যখন অবাক হয় তখনই স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় ভর্তি করে দেওয়া হয় মারিয়াকে। এখানেই মাত্র দুই বছরে পুরো কোরআন মুখস্থ করতে ফেলে সে।

mariam

মাত্র ৫ বছর বয়সে যুদ্ধ কবলিত সিরিয়ার জন্য অর্থ সংগ্রহের লক্ষে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনায় সূরা ইয়াসিনের প্রতিযোগিতার অংশ নেয়। সে মূলত প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে দ্রুততম সময়ে সূরা ইয়াসিন মুখস্থ করে ফেলে।

মাত্র ৫ বছর বয়সে যুদ্ধ কবলিত সিরিয়ার জন্য অর্থ সংগ্রহের লক্ষে একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনায় সূরা ইয়াসিনের প্রতিযোগিতার অংশ নেয়। সে মূলত প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে দ্রুততম সময়ে সূরা ইয়াসিন মুখস্থ করে ফেলে।

মারিয়াকে হাফেজ বানানোর জন্য মা তাঁর মায়ের চেষ্টার কমতি ছিল না। তার ভাষায়, মারিয়া যদিও কোরআনের অর্থ উপলব্ধি করে না, কিন্তু সে খুব ভালোভাবে মুখস্থ করতে পারে। মারিয়ার মা জানান,  দৈনিক ৫ ঘণ্টা পবিত্র কোরআনের নতুন অংশ মুখস্থ করত। এর পর বাকি সময় পেছনের পড়াগুলো পুনরাবৃত্তি করতো। এর ফাঁকে অন্যান্য কাজগুলো করতে হতো। একটি কঠিন কার্যতালিকা তাকে অনুসরণ করতে হয়েছে কোরআন মুখস্থ করার সময়। মারিয়াকে কোরআন মুখস্থের প্রতি অনুপ্রাণিত করার জন্য তার মা, কোরআনে কারিমে কিছু অংশ মুখস্থ হয়ে গেলেই তাকে কিছু একটা উপহার দিয়ে উদ্দীপ্ত করতেন। সেই পুরস্কারগুলো হতো একটি খেলনা, একটি রং বই অথবা ভালো কোনো রেস্টুরেন্টের খাবার। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মারিয়াই পুরস্কার কী হবে সেটা নির্বাচন করতো।