আটমাসে কুরআন হেফজ করলেন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ‘তাহা আসলান’

তুরস্কের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ‘তাহা আসলান’ মাত্র সাড়ে আট মাসে পবিত্র কুরআনের ত্রিশ পারা মুখস্থ করেছেন।

২০ বছরের ‘তাহা আসলান’ তুরস্কের ‘কুটাহিয়া’ শহরের অধিবাসী। দৃঢ় অনুশীলনীর মাধ্যমে তিনি মাত্র সাড়ে আট মাসে সম্পূর্ণ কুরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন।

??????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????

তাহা আসলান কুরআনের একটি বোর্ডিং মাদ্রাসায় ভর্তি হন এবং ব্রেইল বর্ণমালার সহায়তায় মাত্র সাড়ে আট মাসে বিরাট সাফল্য অর্জন করেন।
কুরআন হেফজ করার ব্যাপারে তিনি বলেন: আমি প্রতিদিন পবিত্র কুরআনের ৩ অথবা ৪ পৃষ্ঠা মুখস্থ করেছে এবং এভাবেই সাড়ে আট মাসের মধ্যে সম্পূর্ণ কুরআন হেফজ করেতে সক্ষম হয়েছি।
তাহা আসলান বলেন: বর্তমানে আমি কুটাহিয়া শহরের ‘ডুমিলু পিয়ানার’ বিশ্ববিদ্যালয়ের ধর্মতত্ত্ব বিভাগের ফাস্ট সেমিস্টারে অধ্যয়ন করছি। আমার জ্ঞান অর্জনেরে মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে স্নাতক হওয়ার পর দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য ব্রেইল বর্ণমালায় গ্রন্থ লিখব।
তাহার শিক্ষক ‘সুলাইমান চায়ির’ বলেন: তাহা আসলানের সাফল্যের জন্য নিঃসন্দেহে তার পরিবারের সদস্যরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। কারণ, তারা তাদের সন্তানকে সমর্থন করার মাধ্যমে তার সাফল্যে পথ খুলে দিয়েছে।
বলাবাহুল্য, অতি শীঘ্রই এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অনন্য এই হাফেজের সম্মাননা প্রদর্শন করা হবে।