ইসলামে দাঁড়ি রাখা কতটা জরুরী? এটা কি ফরজ, নাকি সুন্না্‌ত, নাকি ওয়াজিব?

একজন মুসলিমের দাঁড়িঃ

১)দাঁড়ি হচ্ছে ইসলামের নিদর্শন,আল্লাহর বিধান।

২)দাঁড়ি রাখা রসুলুল্লাহ(সাঃ) এর সুন্নাহ,সকল নবীদের সুন্নাহ।

৩)দাঁড়ি ই একমাত্র দৃশ্যমান সুন্নাহ যেটা সাথে নিয়ে আপনি কবরে যাবেন।

৪)দাঁড়ি রাখার হুকুম ফরজ বা বাধ্যতামূলক,শেভ করা সুস্পষ্ট হারাম ও হিজড়াদের সাদৃশ্য অবলম্বন।

৫)অনেকে বলে,দাঁড়ি রাখা ফরয না,বরং সুন্নাত।আসলে,এটা তাদের মূর্খতা বৈ কিছু নয়। সত্য হচ্ছে, রসুলুল্লাহ(সাঃ) দাঁড়ি রেখেছেন তাই দাঁড়ি রাখা সুন্নাহ, রসুলুল্লাহ(সাঃ) দাঁড়ি রাখতে আদেশ দিয়েছেন তাই দাঁড়ি রাখা ফরয আর রসুলুল্লাহ(সাঃ) দাঁড়ি কাটতে কঠোরভাবে নিষেধ করেছেন তাই দাঁড়ি কাটা হারাম।

৬) দাঁড়ি কমপক্ষে এক মুষ্টি পরিমাণ লম্বা রাখতে হবে।সাহাবী ইবনু উমার(রাঃ) এক মুষ্টির অতিরিক্ত অংশ কেটেছেন বলে বর্ণনা পাওয়া যায় আর ইবনু উমার রাঃ হলেন সেই সাহাবী যিনি রসুলুল্লাহ(সাঃ) কে সবচেয়ে বেশি অনুসরণ করতেন,কার্বন-কপি করার জন্য সর্বদা চেষ্টা করতেন।উপরন্তু,দাঁড়ি লম্বা করা বা ছেড়ে দেওয়া বিষয়ক হাদিসগুলোর রাবী এই ইবনু উমার ই।

৭)এক মুষ্টির কমে দাঁড়ি রাখলে দাঁড়ি রাখার ফরয আদায় হবে না।উপরন্তু,কিছু আলেম বলেছেন,দাঁড়ি কোনভাবেই কাটা যাবে না,ছেড়ে দিতে হবে।

৮) কোন মুসলিমের দাঁড়ি নিয়ে হাসি-ঠাট্টা,
ব্যঙ্গ-বিদ্রুপকারী কাফের।কেননা,সে আল্লাহর বিধানের সাথে হাসি-তামাশা করেছে,মজাক করেছে।

৯) দাঁড়ি ছাচা লোক ফাছেক।

১০) দাঁড়ি ছেঁচে মুখটাকে নারীদের মুখের মতো করার মধ্যে কোন বাহাদুরি নেই,বরং এমনটা যে করে সে কাপুরুষ ই বটে,সে তার পৌরুষত্বময় ব্যক্তিত্ব নষ্ট করেছে।

১১)দাঁড়ি ছাঁচা ব্যক্তির মুখের দিকে তাকাতে রসুলুল্লাহ(সাঃ) ঘেন্না প্রকাশ করেছেন,তার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।

১২) যে মেয়ে বলে,আমি দাঁড়িওয়ালা ছেলে পছন্দ করি না, দাঁড়িওয়ালা কাউকে বিয়ে করবো না, বুঝতে হবে ঐ মেয়ের ঈমান নাই।

১৩) কোন মুসলিম নারী উচিত নয় দাঁড়ি ছাঁচা কোন ব্যক্তিকে বিয়ে করা।সাউদীআরবের প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন,ইমাম ইবনু উসাইমীন(রহঃ) নারীদের উদ্দেশ্য করে বলেছেন,নারীগণ যেন ঐ ব্যক্তির প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় যে দাঁড়ি ছাঁচে।

১৪) গোঁফ বা মোছ ছোট করে রাখতে হবে। মোছকে এমন বড় করে রাখা হারাম যে তার এক ঠোঁট বিলীন হয়ে যায় !!

১৫)মোছ শেভ করা মাকরুহ বরং রসুলুল্লাহ(সাঃ) এর নির্দেশনা হচ্ছে ছোট করে রাখা, উপড়ে ফেলতে বলা হয় নি।

‪#‎দয়া‬ করে এইটি শেয়ার করুন বেশি বেশি ।